শিশু মুরছালিনের লাশ উদ্ধারের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে মামলার রহস্য উদঘাটন

প্রকাশিত: ১০:০৩ অপরাহ্ণ, মে ২১, ২০২১

রাকিবুল ইসলাম রাফিঃ

রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার কলিমোহর ইউনিয়নের সাঁজুরিয়া গ্রামে ছয় বছর বয়সী শিশু মুরছালিন অপহরণের চার দিন পর গত বুধবার (১৯ মে) মুরছালিনদের বাড়ির ১০০ গজ উত্তরে একটি পাটক্ষেতে থেকে বস্তাবন্দি অবস্থায় শিশু মুরছালিনের লাশ উদ্ধার করে পাংশা থানা পুলিশ। লাশ উদ্ধারের ৪৮ ঘন্টার মধ্যে মামলার রহস্য উদঘাটন সহ মামলার ২ আসামিকে আটক করেছে পাংশা মডেল থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় শিশু মুরছালিনের দাদা হাবিবুর রহমান (৬২) ও তার চাচাতো ভাই শাকিল আহম্মেদ রনি (১৫) কে শুক্রবার (২১ মে) গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

পাংশা মডেল থানার দেওয়া তথ্য মতে জানা যায়, পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ সাহাদাত হোসেনের নেতৃত্বে এস আই মো: জুয়েল রানা, এস আই মো: কামাল হোসেন ও এস আই নবীন বিশ্বাস অভিযান চালিয়ে শিশু মুরছালিন হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে উপজেলার কলিমহর ইউনিয়নের সাঁজুরিয়া গ্রাম থেকে মৃত মোহাম্মাদ আলীর ছেলে হাবিবুর রহমান ও মো: নজরুল ইসলামের ছেলে শাকিল আহম্মেদ রনিকে গ্রেফতার করে।

পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মাদ শাহাদাত হোসেন বলেন, শিশু হত্যায় দায়ের করা মামলার রহস্য উদঘাটিত হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আরো আসামি গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।

মুরছালিনের বাবা নবাব মন্ডল তার ছেলে নিখোঁজ হওয়ার পরপরই থানায় একটি মামলা করেছিলেন। মুরছালিনের দাদা, চাচা ও চাচাত ভাইয়েরা এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বলে তিনি মামলায় অভিযোগ করেন।




error: কপি রাইট আইনে সর্বস্বত সংক্ষিত