কক্সবাজারে ভূমি দস্যুদের হামলায় মহিলাসহ আহত ৪,থানায় মামলা- আটক ০২

প্রকাশিত: ৩:৫৯ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ৩০, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক :

কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজা ইউনিয়নের পশ্চিম লারপাড়ায় ভুমি দস্যুর হামলায় একই পরিবারের মহিলাসহ চারজন আহত হয়েছেন।

২৬ মার্চ বিকাল ৫.০০ টায় ঝিলংজা ইউনিয়নের পশ্চিম লারপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় কক্সবাজার সদর মডেল থানায় ৫ জনকে বিবাদী করে আরও ৫/৬ জনকে অঙ্গগত দেখিয়ে এজাহার জমা দেয়া হয়েছে।

ঘটনায় আহত আবদুল জলিল,আবদুল গণি, আবদুল সালাম ও ফাতেমা কে মুমূর্ষু অবস্থায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে গুরুতর জখমী মোঃ আবদুল জলিল,আবদুল গণিও আবদুল সালামের অবস্থা গুরুতর ও আশংকাজনক হওয়ায় সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার প্রাথমিক চিকিৎসান্তে তাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন।এবং অপর জখমী ফাতেমা আক্তারকে সদর হাসপাতালে ভর্তিরত অবস্থায় আছে। বর্তমানে জগমীরা মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লাড়ছে বলে জানান, আহত পরিবার সূত্র।

স্থানীয়রা জানান, ঝিলংজা ইউনিয়নের পশ্চিম লারপাড়ায় আবদুল রহিমের বসতগৃহ ভোগদখলীয় বর্ণিত ঘটনাস্থল জমি-জমা সমূহ ছিন্নমূল ভুমিহীন পরিবার হিসাবে সহকারী কমিশনার (ভুমি)সদর, কক্সবাজার কার্যালয়ের বন্দোবস্ত মোকদ্দমা নং ৪৮৮/১৯৫৯-৬০ইং মুলে তৎকালীন প্রাক্তন মহকুমা প্রশাসক, কক্সবাজার এর নির্দেশে দখল প্রাপ্ত হয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ভোগদখন করে আসছিল। হঠাৎ ২৬ মার্চ বিকাল ৫.০০ ঘটিকার সময় পশ্চিম লারপাড়ার মৃত আবদুল মোনাফ এর পুত্র রবি আলম,মোঃ আলম, ফয়েজ আলম এবং আবদুল সালামের ছেলে মোঃ আইয়ুব, উলা মিয়ার ছেলে নুরুল কবির সহ অঙ্গত ৫/৬ জন

অবৈধভাবে দখল নিতে আসে একটি সন্ত্রাসী দল। এসময় জমি দখলে বাধা দিলে বর্ণিত আহতদের কিরিচ দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুতর আহত করে পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী তাদেরকে সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

মামলার বাদী আবদুর রহিম জানান, আমার সম্পত্তি অবৈধ ভাবে দখল নিতে একদল ভুমিদস্যু মরিয়া হয়ে উঠেছে দীর্ঘদিন ধরে। এরই
ধারাবাহিকতায় ২৬ মার্ঢ পশ্চিম লারপাড়ায় চিহ্নিত ভুমিদৃস্যু, ইয়াবা ব্যবসায়ী ১১/১২ জনের একটি সন্ত্রাসী দল অস্ত্র সজ্জিত হয়ে মহিলাসহ ৪ জনকে গুরুতর আহত করেছে।

এঘটনায় ৫ জনকে আসামী করে এবং অঙ্গত ৫/৬ জনকে আসামী করে কক্সবাজার সদর থানায় মামলা দায় করা হয়েছে। যার মামলা নং -২৭৫৩। তাং ২৭/০৩/২০২১ইং।

তিনি আরও জানান, ঘটনায় জড়িত সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে। মামলা করার পর সন্ত্রাসীরা আরো বেশি বেপরোয়া হয়ে গেছে। প্রাণনাশের ভয় দেখাচ্ছে। এলাকায় বলে বেড়াচ্ছে মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে হয়রানি করে এলাকা ছাড়া করবে বলে প্রতিনিয়ত হুমকি দিচ্ছে। যে কারণে পুরো পরিবার নিরপত্তাহীন হয়ে পড়েছে।

তিনি দ্রুত সন্ত্রাসী ভুমি দস্যুদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানান।




error: কপি রাইট আইনে সর্বস্বত সংক্ষিত