দৌলতদিয়া ঘাটে ফেরি পারাপারের অপেক্ষায় ৬ শতাধিক যানবাহন

প্রকাশিত: ৩:১৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১

রাকিবুল ইসলাম রাফি, রাজবাড়ী প্রতিনিধি

দেশের অন্যতম নৌরুট রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটে পদ্মা নদী পারের জন্য অপেক্ষা করছে প্রায় ৬ শতাধিক যানবাহন। কতৃপক্ষ বলছে ফরিদপুরের সদরপুর আটরশির উরস ও টানা তিন দিন সরকারি ছুটি থাকার কারণে অতিরিক্ত চাপ বাড়ছে।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকালে সরেজমিন দৌলতদিয়া ঘাট এলাকাতে গিয়ে দেখা যায়, দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের প্রায় চার কিলোমিটার সড়কের ওপর নদী পারের জন্য অপেক্ষা করছে প্রায় সাড়ে চার শতাধিক বাস ও ট্রাক।

অন্যদিকে গোয়ালন্দ মোড়ে দৌলতদিয়া-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের রাজবাড়ীর দিকে প্রায় তিন কিলোমিটার সড়কের ওপর নদী পারের জন্য অপেক্ষা করছে প্রায় দুই শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক।

যশোর থেকে ছেড়ে আসা ট্রাক চালক মহব্বত হোসেন বলেন, রোববার সন্ধ্যায় গোয়ালন্দ মোড়ে আসলে এখানকার দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশ আমাদেরকে এখান থেকে ঘাটে যেতে না দিয়ে রাজবাড়ীর দিকে ঘুরিয়ে দেন। এখনো এখান থেকে যেতে পারিনি।

অন্য আরেকজন ট্রাক চালক বলেন, সারা রাত এই খোলা আকাশের নিচে রাত কাটিয়েছি। এখানে নেই কোন খাবারের দোকান, নেই টয়লেট। দুর্বিষহ জীবন কাটাচ্ছি।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহনের (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাটের শাখা ব্যবস্থাপক আবু আব্দুল্লাহ্ রনি বলেন, আটরশির উরস ফেরত বাস ও তিন দিন সরকারি ছুটি থাকার কারণে ঘাটে বাড়তি যানবাহনের চাপ রয়েছে। এ সকল যানবাহনগুলোকে নদী পার করার জন্য এই নৌরুটে ১৬টি ফেরি চলছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যাত্রীবাহী বাস ও কাঁচা পণ্যবাহী ট্রাকগুলোকে নদী পারের সুযোগ করে দেওয়া হচ্ছে।




error: কপি রাইট আইনে সর্বস্বত সংক্ষিত