বান্দরবান ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম কর্মসূচির শুভ উদ্বোধন

প্রকাশিত: ৬:২৪ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৪, ২০২০

বান্দরবান প্রতিনিধি: তথ্য প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ আর সে লক্ষ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় হাতে নিয়েছে কাজ করছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে পার্বত্য বান্দরবানে চালু হয়েছে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম কর্মসূচি।

যেখানে মানুষ আগে পুরনো পাসপোর্ট দিয়ে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করত এবং যার মেয়াদ ছিল পাঁচ বছর , বর্তমানে তা পরিবর্তন করে উন্নয়নের দিকে তথ্য প্রযুক্তিতে এগিয়ে নিয়েই পাসপোর্ট কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ কার্যক্রমের আওতায় পাসপোর্টের মেয়াদ বাড়িয়ে ১০ বছর করা হয়েছে এবং তার পৃষ্ঠা সংখ্যা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

আজ ২৪ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে বান্দরবানেও ই-সেবা চালু করা হয়েছে।

ই-পাসপোর্ট কর্মসূচি উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা পাসপোর্ট অফিসের প্রকল্প পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ হোসেন, চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালক মাসুম হোসেন, জেলা প্রশাসক মোঃ দাউদুল ইসলাম, বান্দরবান আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক মোঃ সাখাওয়াত হোসেন সহ আরো অনেকে।

দেশের ৬টি জেলায় ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট বা ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম শুরু হচ্ছে আজ ২৪ ডিসেম্বর। দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে চাঁদপুর, নারায়ণগঞ্জ, কক্সবাজার, বান্দরবান, রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি জেলায় একযোগে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

উদ্বোধনের পরপরই পাসপোর্ট প্রত্যাশীরা নিয়ম অনুযায়ী অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। প্রয়োজনীয় মেশিন, মালামাল ও সফটওয়্যার স্থাপনের পাশাপাশি সংশ্লিষ্টদের প্রশিক্ষণও শেষ হয়েছে। গত ১০ নভেম্বর থেকে দেশের জেলাগুলোতে ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট বা ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম চালুর ঘোষণা দিয়েছিল পাসপোর্ট অধিদপ্তর।

তবে অনেক সীমাবদ্ধতার কারণে সেই সময়ে তা চালু করা যায়নি। উল্লেখ্য, দেশে গত ২২ জানুয়ারি থেকে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম শুরু হয়। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে তুলে দেন দেশের প্রথম ই-পাসপোর্ট। নিজের নামে ইস্যু করা ই-পাসপোর্ট গ্রহণ করে বিশ্বের ১১৯তম দেশ হিসেবে বাংলাদেশে ই-পাসপোর্ট বিতরণের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম উদ্বোধন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর জানিয়েছে, ই-পাসপোর্টের পাশাপাশি এমআরপিও চালু থাকবে। তবে এখন ছয় মাসের বেশি মেয়াদী এমআরপিধারীদের ই-পাসপোর্ট দেওয়া হচ্ছে না। মেয়াদ শেষে এমআরপি নবায়নের জন্য আবেদন ও নির্ধারিত ফি জমা দিলেই তারা ই-পাসপোর্ট পাবেন।

ই পাসপোর্ট এর বিষয় বান্দরবান পাসপোর্ট অফিসের সহকারীর আঞ্চলিক পরিচালক মোঃ সাখাওয়াত হোসেনের সাথে সরাসরি কথা বললে তিনি জানান ই-পাসপোর্ট মানুষের অনেক সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করে দিবে বিশেষ করে প্রবাসীদের জন্য এবং পাশাপাশি বাংলাদেশীদের জন্য। তিনি জানান ই-পাসপোর্ট ২১ কর্মদিবসের মধ্যে পাওয়া যাবে, জরুরী ভিক্তিতে ১০ কর্মদিবস, এবং অতীব জরুরী ভিত্তিতে দুই কর্মদিবসের মধ্যে ই-পাসপোর্ট সুবিধা পাবে সকলে। ৪৮ পৃষ্ঠা এবং ৬৮ পৃষ্ঠা দুই ক্যাটাগরিতে ই-পাসপোর্ট করা হবে, যা ক্যাটাগরি অনুযায়ী অফিস তার ভিত্তিতে ফিস নির্ধারণ করা হবে । তাই সকলেই আশাবাদী ই পাসপোর্ট সেবা কার্যক্রম বান্দরবানের মানুষের জন্য অনেক উপকারী হবে।




error: কপি রাইট আইনে সর্বস্বত সংক্ষিত