শহীদ মিনার বেদীতে গো বর্জ্য : পরিস্কার করল ছাত্রলীগ

প্রকাশিত: ১১:৫১ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৮, ২০২০

কক্সবাজার সদরের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্টান ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের বেদীতে গো বর্জ্য পরিস্কার করলো ছাত্রলীগ। এই ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেন স্কুল কর্তৃপক্ষ।
পবিত্র স্থানে গোবর রাখাকে ঘিরেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে তীব্র নিন্দার ঝড় উঠে। নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকে।

জেলা যুবলীগ নেতা হুমায়ুন কবির চৌধুরী হুমু লিখেন,হায়রে জাতীয় শহীদ মিনার! এ অঞ্চলের সমস্ত খেলাধুলার কেন্দ্র বিন্দু বিদ্যালয়ের মাঠ। নিরাপত্তার নাম করে উঁচু প্রাচীর দিয়ে দিয়ে বন্ধ করে রাখা হলো সমস্ত খেলাধুলা। এমন নিরাপত্তার ভিতর শহীদ মিনার এর এমন অবস্থা দেখে আমরা লজ্জিত।

হেলাল উদ্দিন হেলাল লিখেছেন, পবিত্র শহীদ মিনারে ঈদগাঁওবাসীর ভিন্ন রকম শ্রদ্ধা !! ঈদগাঁও রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী,সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে যারা জড়িত এবং স্কুল কতৃপক্ষ সবাই কি অন্ধ হয়ে গেলেন ?

বিজয়ের মাসে শহীদ মিনারে গোবর রেখে ৫২ ভাষা শহীদ ও মহান মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লক্ষ শহীদ দের প্রতি অবমাননা কেন করা হল? যারা এই অপকর্মে জড়িত তাদের খুঁজে বের করে আইনের মুখােমুখি করে কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করা হউক।

ছাত্রনেতা আর কে আল মামুন লিখেছেন,আজ প্রভাবশালী বলে এরকম নোংরা কাজটুকু করতে পেরেছে। ঐতিহ্যবাহী ঈদগাঁহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের স্থাপিত শহীদ মিনারের দৃষ্টিনন্দন ছবি। এই ছবিগুলো নজর কেড়েছে আমার। প্রশাসনিকভাবে কক্সবাজার সদর উপজেলার ইউএনও মহোদয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

সদর যুবলীগ নেতা জামিল উদ্দিন শাম লিখেন, দ্বায় কে নিবে? ধিক্কার জানাই শহীদ মিনার সুন্দর, পাশের বিল্ডিং অ-সুন্দর।

অবশেষে ১৮ ডিসেম্বর বিকেলে জেলা ছাত্রলীগ সাধারন সম্পাদক আবু মোহাম্মদ মারুফ আদনানের নির্দেশে ঈদগাঁওর ছাত্রনেতা রাহুল পালের নেতৃত্বে তৃনমুলের ছাত্রলীগের কর্মীরা গোবরে ঢাকা পড়া উক্ত শহীদ মিনারটি পরিস্কার করে। এসময় ছিলেন, ছাত্রলীগ নেতা আনোয়ার ফয়েজ,জোহান,আমান,ইয়াহিয়া ও রাকিব।

ছাত্রনেতা রাহুল পাল জানান,জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদকের নিদের্শে স্কুল শহীদ মিনারে গোবর পরিস্কার করলো ছাত্রলীগের কর্মীরা।

বিদ্যালয়ের পেইসবুক পেইজ সূত্রে জানা গেছে,
১৬ই ডিসেম্বর যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করে বিদ্যালয়ের সকল কর্মকান্ড শেষ করে কর্তৃ পক্ষের বিদ্যালয় ত্যাগের পর কে-বা কারা বিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার মানসিকতায় বিদ্যালয়ের বাগানের জন্য আনায়নকৃত গোবর (যা বারান্দায় রাখা ছিল) গুলো শহীদ মিনানের মত পবিত্র জায়গায় ছিটিয়ে দিয়ে তা ছবি করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে বিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা বিদ্যালয় কতৃপক্ষ এমন হীন কর্ম কাণ্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানাই। পূর্বেও একটি চক্র ধারাবাহিকভাবে বিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার চেষ্টা করেছিল যা এখনো চলমান। বিষয়টি বিদ্যালয় কতৃপক্ষের দৃষ্টিগোচর হলে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় দ্রুত দপ্তরিদের বিদ্যালয়ে পাঠিয়ে তা সরিয়ে নেওয়া ব্যবস্থা নেন। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিষয়টি তদন্ত করার জন্য তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করে দিয়েছেন। তদন্ত কমিটিকে আগামী তিন কর্মদিবসের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

ঈদগাহ আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা খোরশেদুল জান্নাতের সাথে কথা হলে তিনি, স্কুল শহীদ মিনারে মহান বিজয় দিবসের দিন পুষ্পস্তবক অর্পন করে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এর পরে কে বা কারা গোবর ছড়ালো। এই ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন এই প্রতিবেদককে।




error: কপি রাইট আইনে সর্বস্বত সংক্ষিত