বসল পদ্মাসেতুর ৩৯তম স্প্যান, আর বাকি মাত্র ২টি

প্রকাশিত: ৩:৪৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৭, ২০২০
দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু কাজ। দুপুর ১২ টার দিকে ৩৯তম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে এখন দৃশ্যমান প্রায় ছয় কিলোমিটার সেতু। আর মাত্র দুটি স্প্যান বসলেই পুরো সেতুর জন্য অপেক্ষার শেষ হবে।
আগে থেকেই মাওয়া পাড়ে টানা নয়টি আর জাজিরা পাড়ে টানা ২৯টি স্প্যান বসানো আছে। সব মিলে দৃশ্যমান আছে ৩৮টি স্প্যান। বাকি যে ৩ টি স্প্যান তার সবগুলোই মাঝনদীতে, দুই প্রান্তের মাঝে।
শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) সকাল ৯ টায় মাওয়ার কুমারভোগ ইয়ার্ড থেকে ৩৯ তম স্প্যানটি নিয়ে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরের পিলারের দিকে রওয়ানা দেয় ক্রেন তিয়ান ইও। ৪০ মিনিটে পৌঁছে যায় ১০ ও ১১ নম্বর পিলারের কাছে।
মাঝনদীতে ভাসমান ক্রেনটি নোঙ্গর করতে সময় লাগে আরও ১ ঘণ্টার বেশি। দুই পাশের নৌযানগুলোকে সরিয়ে দিয়ে স্প্যানবাহী ক্রেনটির নিরাপত্তা নিশ্চিত করে সেনাবাহিনীর চারটি স্পিডবোট। সব মিলে দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে পিলারের উপর তুলে দেয়া সম্ভব হয় ৩৯তম স্প্যান।
স্থানীয় একজন জানান, দক্ষিণাঞ্চলের মানুষরা অনেক কষ্টে বাড়ি যায়। এই সেতু হয়ে গেলে মানুষের কষ্ট কমে যায়। একই সাথে অথনৈতিক কর্মকাণ্ডও বেড়ে যাবে।
পদ্মা সেতু প্রকল্পের পরিচালক শফিকুল ইসলাম বলেন, সাম্প্রতিক সময় কাজের অগ্রগতিতে আমরা সন্তুষ্ট। তবে যখন ৪১তম স্প্যান বসে যাবে তখন একটা মাইলস্টোন হবে। সেই সাথে সাকসেসটা তখন হবে যখন ব্রিজটা চালু করতে পারবো। সেই দিনের অপেক্ষায় আছি।
এ স্প্যানটি বসানোর মধ্য দিয়ে মাওয়া পাড় থেকে একটানা ১০ টি স্প্যানে দৃশ্যমান করা হয়েছে দেড়কিলোমিটার সেতু।



error: কপি রাইট আইনে সর্বস্বত সংক্ষিত