তৈরি হচ্ছে ডেটা প্রাইভেসি অ্যান্ড লোকালাইজেশন ল’

প্রকাশিত: ৫:৩২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১০, ২০২০

ডেটার ক্যাটাগরি নির্ধারণ করে ডেটা প্রাইভেসি অ্যান্ড লোকালাইজেশন আইন করছে সরকার। শুক্রবার রাতে এক ওয়েবিনারে এ তথ্য জানান তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্নেন্স ফোরামের (বিআইজিএফ) পঞ্চদশ বার্ষিক সাধারণ সভার ‘কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই), ব্লকচেইন, ইন্টারনেট অফ থিংস (আইওটি) এবং ডেটা প্রাইভেসি’ বিষয়ক এ ওয়েবিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন তিনি।

পলক বলেন, ডিজিটাল প্রযুক্তি জীবনকে সহজ করলেও কিছু ঝুঁকিও তৈরি হয়েছে। ডেটা গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ, ডেটার ক্যাটাগরি নির্ধারণের মাধ্যমে ব্যক্তিগত ও বাণিজ্যিক বিনিময়যোগ্যতা এবং গোপনীয়তার বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। ডেটার বিষয়ে সবাইকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সবাই কোনো না কোনোভাবে হ্যাকিংয়ের শিকার হচ্ছে।

‘আমাদের যে ১০ কোটি ডিজিটাল আইডি রয়েছে সেই আইডির কোন কোন তথ্য প্রাইভেট কোম্পানিকে দেয়া যাবে আর কোন তথ্য প্রাইভেসির কারণে কারও কাছে শেয়ার করা যাবে না এ বিষয়ে একটি সুনির্দিষ্ট গাইড লাইন থাকা দরকার। সে কারণেই ব্লকচেইন ও আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, রোবটিকস নিয়ে একটি স্ট্র্যাটেজি বা পলিসি ইতোমধ্যেই প্রণয়ন করা হয়েছে’ বলছিলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের নির্দেশনায় একটি ডেটা প্রাইভেসি অ্যান্ড লোকালাইজেশন ল’ করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, এটি এখন খসড়া পর্যায়ে রয়েছে। অল্পদিনের মধ্যে বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্নেন্স ফোরাম, বিভিন্ন প্লাটফর্ম ও গণমাধ্যমসহ বিশেষজ্ঞদের মতামত নিয়ে জাতীয় সংসদে উত্থাপন করা হবে।

বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্নেন্স ফোরামের সভাপতি ও তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি হাসানুল হক ইনুর সভাপতিত্বে সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন বিটিআরসি পরিচালক জেনারেল ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোস্তফা কামাল, ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সির মহাপরিচালক মো. রেজাউল করিম, বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর এবং ন্যাশনাল ডাটা সেন্টার বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের ডিরেক্টর তারেক এম বরকত উল্লাহ।




error: কপি রাইট আইনে সর্বস্বত সংক্ষিত
%d bloggers like this: