বাংলাদেশ, , মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

মহেশখালীতে পান চাষীদের হতাশায় দিন যাচ্ছে

বাংলাদেশ পেপার ডেস্ক ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০২০-০৪-২১ ০৮:৫৩:২৩  

কক্সবাজার জেলার দ্বীপ উপজেলা সাগরকন্যা মহেশখলীর এক তৃতীয়াংশ মানুষ জীবিকা নির্বাহ করে মিষ্টি পান চাষ করে, যে পানের সুনাম সারা বিশ্বে রয়েছে,কিন্তু বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কারণে তাদের দিন যাচ্ছে খুব হতাশায়।

তাদের একমাত্র উপার্জনের মাধ্যম হচ্ছে পান চাষ,,কিন্তু বর্তমান এক স্থান থেকে অন্য স্থানের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকার কারণে পানের উপযুক্ত দাম পাচ্ছে না সাধারণ পান চাষী।
এভাবে চলতে থাকলে সাধারণ পান চাষীদের অনাহারে দিন কাটাতে হবে।

এব্যাপারে পান চাষীদের সাথে কথা বলে জানা যায়,করোনা পরিস্থিতির আগে যে পান প্রতি বিরা ৩৫০ টাকা বিক্রি হত সে পান এখন বিক্রি হচ্ছে ৫৫ টাকায়।সে সুবাদে সুযোগ নিচ্ছে অসাধু পান ব্যবসায়ীরা।তারা এক এলাকার পান আরেক এলাকায় যেতে পারছেনা বলে মনগড়া দর দাম দিয়ে পান কিনে নিচ্ছে অসাধু পান ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট। এক দিকে করোনার প্রভাবে সস্তা আরেক দিকে অসাধু ব্যবসায়ীরা তাদের জিম্মি করে সস্তায় পান ক্রয়ের অভিযোগ।

আরেকজন পান বিক্রেতা সে পান বিক্রি করে পেল ৪৫০০ টাকা কিন্তু মজুরী দিতে হবে ৩৬০০ টাকা,অবশিষ্ট টাকা গুলো দিয়ে কি অাদৌ সংসার চালানো সম্ভব কিনা? তারা আরো বলেন করোনায় মরার আগে আমরা অনাহারে মরে যাব।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, কৃষি মন্ত্রনালয়,,উপজেলা প্রশাসনের কাছে আকুল আবেদন,,পান চাষীদের জন্য বিশেষ প্রণোদনা অথবা সুদ বিহীন ঋণের ব্যবস্থা করলে মহেশখালীর মিষ্টি পানের ঐতিহ্য কে ধরে রাখা সম্ভব হবে।না হয় এই মহেশখালী তে খুব তাড়াতাড়ি দূর্ভিক্ষ নেমে আসবে বলে সচেতন মহলের ধারনা।

লেখক- এম.এন.কে. আকাশ


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
       
                                             
                           
ফেইসবুকে আমরা