বাংলাদেশ, , শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

মহেশখালীতে ৩ পদ্ধতিতে পান বেচা কেনা করা যাবে- ইউ এন ও

বাংলাদেশ পেপার ডেস্ক ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০২০-০৪-০৫ ২৩:৫০:০৬  

এম,এ রহমান ছিদ্দিকী,মহেশখালীঃ

মহেশখালীতে প্রতিটি ইউনিয়নে ৩ টি পদ্ধতিতে পান বেচা-কেনা করা যাবে। গতকাল শনিবার (৪ মার্চ) সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ জামিরুল ইসলাম গনমাধ্যমকে জানান এই তথ্য ৷ তিনি আরো জানান, করোনার কারণে সৃষ্ট লকডাউনে কোনোভাবেই বাজারে গণজমায়েত করা যাবে না। তাই স্বাভাবিক ব্যবস্থার বড় পরিসরের পানবাজার বন্ধ করা হয়েছে। তবে পান বেচাকেনা বন্ধ করা হবে না। তাই পান বেচা-কেনার জন্য বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য গতকাল সন্ধ্যায় শনিবার সব বাজারের ইজারাদারদের ডেকে বৈঠক বসেন ইউএনও। বৈঠককে দীর্ঘ আলোচনার পর গণবাজার না বসিয়ে বিকল্প ব্যবস্থায় পান বেচা-কেনা”র উপর জোর দেয়া হয়। পান মহেশখালীর প্রধান অর্থকরী পণ্য। এই পণ্য বিক্রি করতে না পারলে মহেশখালীর অর্থনীতি ভেঙে পড়বে। তার প্রভাব সরকারের উপর পড়বে। সে জন্য যেকোনো পদ্ধতিতে পানবেচা কোন সচল রাখা হবে।

দেশে করোনা সংক্রমনের কারনে দেশের এমন পরিস্থিতি সাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত গনজমায়েত করা যাবে না। তিনি আরো জানান, সবার সমন্বিত পরামর্শ মতে, পান বেচাকেনায় আপাতত তিনটি ব্যবস্থা হাতে নেয়া হয়েছে। ১ম পদ্ধতি: পানের পাইকাররা ক্রেতাদের বাড়ি ও বিভিন্ন পাড়ার মোড়ে মোড়ে গিয়ে পান ক্রয় করবে। ২য় পদ্ধতি: ভিড় কমাতে সপ্তাহের পাঁচদিন বাজার বসানো হবে সীমিত পরিসরে। ৩য় পদ্ধতি: একটি বাজারকে ক্ষুদ্রভাবে তিন জায়গায় বসানো হবে এবং নির্দিষ্ট স্থানে খুঁটি দিয়ে দূরত্ব বজায় রেখে বেচা-কেনা করতে হবে।


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
       
                                             
                           
ফেইসবুকে আমরা