বাংলাদেশ, , শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

আদম তমিজিকে গ্রেফতারে সঠিক সময়ের অপেক্ষায় র‌্যাব

বাংলাদেশ পেপার ডেস্ক ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০২৩-১১-১৮ ২১:৫৪:১০  

হক গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আদম তমিজি হকের নামে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ও মামলা রয়েছে, তার বাসায় অভিযানের সার্চ ওয়ারেন্টও রয়েছে। পরিস্থিতি অনুকূলে এলেই আদম তমিজি হককে আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারের র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

খন্দকার মঈন বলেন, তাকে গ্রেফতারে অভিযানে গেলে তিনি বেশকিছু অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটান। অভিযানের সময় এক ব্রিটিশ নাগরিক ও স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে ব্ল্যাকমেইলিং করেন। এমন পরিস্থিতি এড়াতে তাকে গ্রেফতার করা হয়নি। তবে অভিযান চলমান আছে। আমরা শুনেছি, তার বন্ধু পরিচয় দেওয়া সেই ব্রিটিশ নাগরিক চলে গেছেন। আমরা স্বাভাবিক ও সুস্থভাবে তাকে আইনের আওতায় আনতে চাই।

তিনি বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে সব নিয়ম মেনেই আমরা তাকে আইনের আওতায় আনতে তার বাসায় যাই। বৃহস্পতিবার র‌্যাব কর্মকর্তারা নিয়ম মেনেই ম্যাজিস্ট্রেট, ডাক্তারসহ সেখানে অভিযানে যান।

খন্দকার মঈন বলেন, তার বাসায় একজন ইউকে নাগরিক ছিলেন, চতুর্থ স্ত্রী ছিলেন। সব নিয়ম মেনেই আমরা গ্রেফতার করতে চেষ্টা করি। কিন্তু একপর্যায়ে তিনি ছুরি নিয়ে সুইসাইড করার হুমকি দেন, জানালার গ্লাস ভেঙে ফেলেন, এক পা বাইরে দিয়ে লাফ দেওয়ার হুমকি দেন। এমনকি তার স্ত্রীকেও বাসার উপর থেকে ফেলে দেওয়ার হুমকি দেন। অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে গ্রেফতার করা হয়নি, কিন্তু আমাদের অভিযান চলমান আছে। পরিস্থিতি অনুকূলে এলে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা বলেন, আমরা স্বাভাবিকভাবে তাকে গ্রেফতার করতে চাই। তিনি একেকবার একেক স্টেটমেন্ট দিচ্ছিলেন। এর আগে তিনি তার ফ্যাক্টরির সব শ্রমিকদের কাভার্ডভ্যানে ডেকে এনে আটকে রেখেছিলেন। এরপর বাসার মেইন গেট ঝালাই করে দিয়েছেন, যাতে কেউ বের হতে না পারে। এমনকি শ্রমিকরা বের হতে গেলে তাদেরকেও আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছেন তিনি। পরে আমরা তার বাসায় গেলে শ্রমিকরা বের হয়ে যান।


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
       
                                             
                           
ফেইসবুকে আমরা