বাংলাদেশ, , শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

টেকনাফ সোলার বিদ্যুৎ কেন্দ্র পরিদর্শন করলেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

বাংলাদেশ পেপার ডেস্ক ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০২৩-০১-১৯ ১৮:০১:২৮  

টেকনাফের জুলস পাওয়ার ২০ মেগাওয়াটের সোলার বিদ্যুৎ প্রকল্প পরিদর্শন করেছেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেল ৪ টায় হেলিকপ্টার যোগে তিনি উপজেলার হ্নীলার আলীখালী ২০ মেগাওয়াট সোলার বিদ্যুৎ কেন্দ্রে পৌঁছান।

নাফ নদীর ওপারে মিয়ানমার আর এপারে বাংলাদেশ। নদীর তীরে লবণমাঠে সারি সারি বসানো সৌর প্যানেল। এসব প্যানেল থেকে উৎপাদিত বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হয়ে গ্রাহকের কাছে পৌঁছে যাচ্ছে । এ মাঠে ২০ বছর আগেও উৎপাদিত হতো লবণ। সৌরবিদ্যুতের সুফল পাচ্ছে কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার ৪০ হাজারের বেশি গ্রাহক। এখন আগের মতো ঘন ঘন লোডশেডিং হচ্ছে না। এত বড় সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প দেশে আর কোথাও নেই। দেশের সর্ববৃহৎ ২০ মেগাওয়াটের সৌরবিদ্যুৎ চালু হলো টেকনাফে।

কাজটি বাস্তবায়ন করেছে জুলস পাওয়ার লিমিটেড (জেপিএল)। উপজেলার গ্রাহকের চাহিদার ৮০ শতাংশই সরবরাহ হচ্ছে এ সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে।

উপজেলার হ্নীলার আলীখালীতে ১১৬ একর জমিতে ২০ মেগাওয়াটের সোলার বিদ্যুৎ প্রকল্পটি স্থাপন করা হয়েছে।

টেকনাফ পল্লী বিদ্যুৎ কার্যালয় সূত্র জানায়, উপজেলায় ৪০ হাজার বিদ্যুতের গ্রাহক আছে। এর মধ্যে টেকনাফে দৈনিক ১১ মেগাওয়াট চাহিদা রয়েছে। সোলারটেক থেকে উৎপাদিত বিদ্যুৎ স্থানীয়ভাবে চাহিদা পূরণ করে পার্শ্ববর্তী উখিয়া উপজেলায় সরবরাহ করা হচ্ছে।

এ সময় মহেশখালী কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামরুজ্জামান, সহকারী কমিশনার ভূমি ইরফানুল হক চৌধুরী, হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলীসহ প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিতি ছিলেন


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
       
                                             
                           
ফেইসবুকে আমরা