বাংলাদেশ, , সোমবার, ৪ মার্চ ২০২৪

হাটহাজারীতে নিজের বিয়ে নিজেই রুখে দিলেন কলেজছাত্রী

বাংলাদেশ পেপার ডেস্ক ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০১৯-০৯-২৭ ১৯:৪৮:৫৩  

ডেস্ক নিউজঃ

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) ফোন করে নিজের বাল্যবিয়ে নিজেই রুখে দিলেন এক কলেজছাত্রী।

শুক্রবার বিকালে হাটহাজারী উপজেলার গুমানমর্দ্দন ইউনিয়নের পেশকার হাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ছদ্মনাম বীথি। বয়স মাত্র ১৭ বছর। পড়াশুনা করেন চট্টগ্রামের হাটহাজারী সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণিতে। তার মতামতকে প্রত্যাখ্যাত করে বিয়ে দিচ্ছিল এক প্রবাসীকে। তাইতো উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমিনকে ফোন করে নিজের বাল্য বিয়ে নিজেই রুখে দিলেন ওই ছাত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শী ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার গুমানমর্দ্দন ইউনিয়নের সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির এক ছাত্রীকে মতের বিরুদ্ধে মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসীর সঙ্গে বিয়েদিচ্ছিলেন অভিভাবকরা।

শুক্রবার জুমার নামাজের পরে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল।

বিষয়টি আচঁ করতে পেরে ওই কলেজছাত্রী গোপনে বিষয়টি মোবাইল ফোনে ইউএনও রুহুল আমিনকে অবহিত করেন।

খবর পেয়ে ইউএনও এ ব্যাপারে দ্রুত কার্যকারী পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সম্রাট খিসাকে। তিনি দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই বিয়ে বন্ধ করে দেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সম্রাট খিসা যুগান্তরকে জানান, ইউএনও মারফত বিষয়টি জানতে পেরে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী ওই ছাত্রীর বিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়।

তিনি বলেন, এ সময় ছাত্রীর পূর্ণ বয়স হওয়ার আগে বিয়ে না দিতে তার পরিবারকে সতর্ক করি। এছাড়া ছাত্রীর পরিবারকে ৩০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
       
                                             
                           
ফেইসবুকে আমরা