বাংলাদেশ, , শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

আবারো মানবতার অনন্য নজির সৃষ্টি করল ছাত্রলীগ

বাংলাদেশ পেপার ডেস্ক ।।  সংবাদটি প্রকাশিত হয়ঃ ২০২২-০৬-১০ ১৬:৪০:০০  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা চলাকালীন এক পরীক্ষার্থীর অভিভাবক অসুস্থ হয়ে পড়লে অসুস্থ ওই ব্যক্তিকে ছাত্রলীগের জয় বাংলা বাইক সার্ভিসের মাধ্যমে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কবি জসীম উদ্দিন হল শাখার নেতাকর্মীরা।

শুক্রবার (১০ জুন) সাড়ে ১১ টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনের সামনে এ ঘটনা ঘটে। অসুস্থ ওই ব্যক্তির নাম মো. ইবরাহীম (৬০)। তিনি ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থী সাদিয়ার ফুফা বলে জানা যায়।
জানা যায়, পরীক্ষা চলাকালে সাদিয়ার (পরীক্ষার্থী) ফুফা ইব্রাহিম অভিভাবক ছাউনিতে বিশ্রাম নিচ্ছিলেন। এমন সময় হঠাৎ করে তিনি মাথা ঘুরে পড়ে যান। ওই সময় মধুর ক্যান্টিনের সামনে ছাত্রলীগের কবি জসীম উদ্দিন হল শাখার নেতাকর্মীরা জয় বাংলা বাইক সার্ভিস সেবায় নিয়োজিত ছিলেন। বিষয়টি ওই হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ওয়ালিউল সুমনের নজরে আসলে তিনি সাথে সাথে জয় বাংলা বাইক সার্ভিসের মাধ্যমে অসুস্থ ওই ব্যক্তিকে প্রথমে ঢাবির মেডিকেল সেন্টারে ভর্তি করা হয়। পরবর্তীতে অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেলের জরুরী সেবায় ভর্তি করানো হয়।
হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নেয়ার এক ঘন্টা পর অসুস্থ ওই ব্যক্তি একটু স্বাভাবিক হলে, তার কাছ থেকে ফোন নাম্বার নিয়ে ছাত্রলীগের কর্মীরা পরিবারের সাথে যোগাযোগ করেন। পরে রাজধানীর নবাবপুর থেকে তার স্ত্রী এবং ছেলে এসে সেবাদানকারী ছাত্রলীগ কর্মীদের সাথে যোগাযোগ করলে অসুস্থ ব্যক্তিকে তাদের হাতে তুলে দেন বলে জানা যায়।

এ বিষয়ে জসীমউদ্দিন হল ছাত্রলীগের সভাপতি ওয়ালিউল সুমন বাংলাদেশ পেপার‘কে বলেন, ”সাদিয়াকে (পরীক্ষার্থী) পরীক্ষা কেন্দ্রে রেখে মধুর ক্যান্টিনে অভিভাবকদের বসার স্থানে বসে রেস্ট নিচ্ছিলেন একজন অভিভাবক (ইব্রাহীম)। হঠাৎ তিনি মাথা ঘুরে পড়ে যান। আমরা কবি জসীম উদদীন হল ছাত্রলীগ আংকেলকে তাড়াতাড়ি করে জয় বাংলা বাইক সার্ভিসের মাধ্যমে ঢাকা মেডিকেলে জরুরী চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করি। আংকেল এখন আশংকামুক্ত। ওনার বাসায় যোগাযোগ করার পর বাসা থেকে তার বড় ছেলে মেডিকেলে এসেছেন। এখন আমরা ওই ব্যক্তিকে তার পরিবারের হাতে তুলে দিয়েছি। উনি এখন পুরোপুরি সুস্থ।”
ছাত্রলীগের এই সহযোগিতায় কৃতজ্ঞতা জানান অসুস্থ ওই অভিভাবকের ছেলে আশিকুর রহমান। তিনি বলেন, ‘ছাত্রলীগের ভাইয়েরা আমাদের সাথে যোগাযোগ করে এ ব্যাপারে জানানোর পর আমরা তাড়াতাড়ি চলে আসি। এখনো উনি হাসপাতালে আছেন। তবে এখন একটু সুস্থ আছেন।’
এই সেবায় যারা মুখ্য ভূমিকা রাখেন এর মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সমাজসেবা সম্পাদক ওয়ালীউল্লাহ রাসু, ছাত্রবৃত্তি বিষয়ক সম্পাদক শেখ আরিফিন ইমরোজ,কবি জসীম উদ্দীন হল ছাত্রলীগের কর্মী তাওহিদ কবির সাগর, ফাহাদ বিন হাসান, মোঃ শাহরিয়ার শুভ্র এবং হেদায়েতুল ইসলাম।


পূর্ববর্তী - পরবর্তী সংবাদ
       
                                             
                           
ফেইসবুকে আমরা