অকারণে বের হলেই জরিমানা, তবে খাদ্যে সংকটে মানবিকতা

প্রকাশিত: ৮:১৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

করোনা ভারাইসের নতুন ভেরিয়েন্টের প্রাদুর্ভাব এর কারনে গত সোমবার ২৮ই জুন থেকে সারাদেশে কঠোর লকডাউন ঘোষণা করা হয়। এই লকডাউন কার্যকর করার লক্ষ্যে সেনাবাহিনী, বিজিবি ও পুলিশ সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করে আসছে।

চলমান লকডাউনে অকারনে বের হলেই ম্যাজিস্ট্রেট দ্বারা করা হচ্ছে জরিমানা ও গ্রেফতার।

তবে চলমান লকডাউনে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার খাদ্য সহায়তার সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সর্বস্তরের জনগণ।

আজ কক্সবাজার শহরে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়,বিভিন্ন পয়েন্টে চলমান লকডাউনে অকারনে বের হওয়া মানুষদের জরিমানা করা হলেও, খাদ্য সংকটে থাকা মানুষদের হটলাইন ৩৩৩ নাম্বারে কল করার মাধ্যমে খাদ্য সহায়তা পাওয়ার ব্যাপারে জানাচ্ছেন স্বয়ং কক্সবাজার জেলার সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জনাব আরাফাত সিদ্দিকী।

তিনি বাংলাদেশ পেপারকে বলেন, বর্তমান নতুন করোনা ভেরিয়েন্টটি অত্যন্ত শক্তিশালী, যার প্রকোপ চৌদ্দদিন চলমান লকডাউনের পরেও কমছে না। আমরা চেষ্টা করছি, মানুষ যেন বিনা কারনে বের না হয়। যারা বিনা প্রয়োজনে বের হয়েছেন, তাদের সতর্ক করে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। যদি গুরতর কোন অসদাচরণ দেখা যায় তবে তাদের জন্য জরিমানা বা শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন,

কিন্ত কেউ যদি খাদ্য সংকটের কথা জানান, তবে তাদের হটলাইন নাম্বার ৩৩৩ তে ফোন করে, প্রধানমন্ত্রীর খাদ্য সহায়তা পাওয়ার ব্যাপারে সহায়তা করা হচ্ছে।

এই সময় ঔষধ কিনতে আসা পথচারী সদর উপজেলার হতদরিদ্র পঙ্গু ফইজুন্নেসা জানান, তিনি গতকাল শনিবার (১০ই জুলাই) বিকেল সাড়ে ৩ টায় সদর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে প্রধানমন্ত্রীর এই উপহার সামগ্রী পেয়েছিলেন। যার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ।

 




error: কপি রাইট আইনে সর্বস্বত সংক্ষিত