পুলিশ জনগণের বন্ধু,আবারো তা প্রমান করলো ডবলমুরিং থানা

প্রকাশিত: ৫:২৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০২১

চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ

গভীর রাত ৩ টা বাজে হঠাৎই শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায় স্কুল শিক্ষিকা শিখা বড়ুয়ার (৬৮)। এমন পরিস্থিতিতে ঘরের অক্সিজেন শেষ এবং ওই সময়টাতে দোকানও বন্ধ। উপায় না দেখে ফোন করেন শেষ ভরসাস্থল থানায়। ফোন পেয়েই অক্সিজেন নিয়ে হাজির হয় ডবলমুরিং থানা পুলিশ।

বুধবার (৭ জুলাই) রাতে চট্টগ্রামের ডবলমুরিং থানার মোগলটুলি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ডবলমুরিং থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, রাত ৩টার দিকে শিক্ষিকার পরিবার থেকে ফোন দেওয়া হয়। উনার শ্বাসকষ্ট ছিল। অক্সিজেন শেষ হয়ে যাওয়ায় আরেকটি অক্সিজেনের প্রয়োজন হয়।

আমাদের থানার পক্ষ থেকে সেই অক্সিজেন সিলিন্ডার সরবরাহ করা হয়। স্কুল শিক্ষিকা শিখা বড়ুয়া পটিয়া উপজেলার বরিয়া গ্রামের ডাঃ বিমলেন্দু বড়ুয়ার স্ত্রী। তার ছেলে খুলনায় থাকেন। চট্টগ্রামে তিনি মোগলটুলী বড়ুয়া পাড়া থাকেন মেয়ের বাসায়। রাতে উনার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায়।

এসময় বাসায় থাকা অক্সিজেন। পরবর্তীতে তাঁর শারীরিক অবস্থার কথা জানতে চাইলে , চট্টগ্রাম ডবলমুরিং থানার এসআই, এইচ এম ওয়াহিদ উল্লাহ রিফাত জানান, আমরা অক্সিজেন নিয়ে এসেছিলাম কিন্তু বৃহস্পতিবার সকালে ওই স্কুল শিক্ষিকা শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

ইহ/মু/বপ