শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার প্রস্তুতি নেই, নতুন সিদ্ধান্ত কাল

প্রকাশিত: ৭:১২ অপরাহ্ণ, মে ২৫, ২০২১

করোনার সংক্রমণের কারণে দেশে প্রায় ১৫ মাস ধরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি চলছে। দেশের প্রায় চার কোটি শিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবন বড় ধরনের ক্ষতির মুখে পড়েছে। করোনার কারণে দফায় দফায় ছুটি বাড়িয়ে চলছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সর্বশেষ ঘোষণা অনুযায়ী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি ২৯ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়।

কিন্তু চলমান এই ছুটিতে অধর্য্য হয়ে পড়েছে দেশের সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। গতকাল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার দাবিতে সারাদেশে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করেছে।

কিন্তু সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী ৩০ মে পর্যন্ত মানুষের চলাচল ও কার্যক্রমে বিধিনিষেধ ঘোষণা করা হয়েছে। এদিকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ১৫ দিন আগ থেকে প্রস্তুতি গ্রহণ কার্যক্রম নেয়া হবে বলে পূর্ব নির্দেশনা দিয়েছিল সংশিষ্ট কর্তৃপক্ষ। সুতরাং আপাতদৃষ্টে বোঝাই যাচ্ছে ২৯ মের পরদিনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার সুযোগ নেই। এ অবস্থায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আবার বাড়বে কি না, বাড়লে কত দিন বাড়বে, নাকি একটি সময় ঘোষণা করে সীমিত পরিসরে খোলার ঘোষণা হতে পারে—এসব বিষয় জানা যাবে আগামীকাল বুধবার।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি ও শিক্ষাসংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি ২৬ মে সংবাদ সম্মেলনে এসব বিষয় নিয়ে কথা বলবেন বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। দুপুর ১২টায় ভার্চ্যুয়ালি অনুষ্ঠিত হবে সংবাদ সম্মেলনটি।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, এ বিষয়ে সরকারের শীর্ষ পর্যায় থেকে যে নির্দেশনা দেওয়া হবে, মূলত সে অনুযায়ীই ব্যবস্থা নেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

উল্লেখ্য, করোনা পরিস্থিতির কারণে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এর আগে ২৩ মে থেকে স্কুল ও কলেজে এবং ২৪ মে থেকে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার ঘোষণা দেওয়া হলেও করোনার বাস্তবতায় ছুটি বাড়ানোর ঘোষণা আসে। তবে বাস্তবতা হলো দীর্ঘ ছুটির কারণে প্রাথমিক থেকে উচ্চশিক্ষা পর্যন্ত প্রায় চার কোটি শিক্ষার্থী মারাত্মক সমস্যায় পড়েছে।




error: কপি রাইট আইনে সর্বস্বত সংক্ষিত