মহেশখালীর ৬ ফেসবুকারের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা

প্রকাশিত: ১২:৩১ পূর্বাহ্ণ, মে ৭, ২০২১

চট্টগ্রাম সংবাদদাতাঃ

মহেশখালীর ৬ ফেসবুকারের নামে চট্টগ্রাম সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা হয়েছে। যার মামলা নং ৪।

আসামিরা হলেন- বড় মহেশখালীর বাসিন্দা রহিম বকসুর পুত্র এস এম রুবেল, গোরকঘাটার মো. কাসেমের পুত্র আনম হাসান, একই এলাকার মনির আহমদের পুত্র গাজী আবু তাহের, পুটিবিলা দাসিমাঝি পাড়ার মো. ফারুক ইকবাল, ঘোনাপাড়ার মৃত শামসুদ্দোহার পুত্র আবদুল করিম রিফাত এবং কুতুবজোমের কামাল পাশার পুত্র আজিজ সিকদার।

৫ মে চট্টগ্রাম সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলাটি করেন মহেশখালী কলেজের আইসিটি শিক্ষক আবু সরওয়ার রানা। মামলা তদন্তপূর্ব আগামি ৫ জুন প্রতিবেদন জমা দিতে মহেশখালী থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

বাদি অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, রানা একজন শিক্ষিত লোক এবং পেশায় কলেজ শিক্ষক। মহেশখালী উপজেলার মহেশখালী ডিগ্রী কলেজের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ের প্রভাষক। তার পাশাপাশি অধীন মহেশখালী উপজেলাধীন আইল্যান্ড কম্পিউটার ট্রেনিং ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠানের উদ্দ্যোক্তা। দীর্ঘদিন শিক্ষকতার পাশাপাশি অধীনের আইটি প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করে আসছে। উক্ত আইটি প্রতিষ্ঠানের অনেক ছাত্র-ছাত্রী প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে। আসামীগণ এলাকার সন্ত্রাস ও খারাপ প্রকৃতির এবং চাঁদাবাজ হয়। আসামীদের বৈধ কোন পেশা নেই। আসামীগণ এলাকার বিভিন্ন সম্মানি ব্যক্তিবর্গের নিকট হতে বিভিন্ন ভাবে কুৎসা রটনা করে টাকা আদায় করে। বিগত ১৯ এপ্রিল গোরকঘাটা চরপাাড়া এলাকায় একটি মেয়েকে নিয়ে অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটে। উক্ত ঘটনার কারণে সে মহেশখালী থানায় একটি নিয়মিত মামলা রুজু করে। যাহা মহেশখালী থানার মামলা নং ২৭/০৪/২০২১ জিআর নং-১০৩/২০২১। কিন্তু অত্র মামলার আনম হাসানের নেতৃত্বে অন্যান্য আসামীগণ উক্ত ঘটনাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য এবং রানাকে সামাজিক ভাবে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য এবং বাদীর সুনাম ক্ষুন্ন করার জন্য তাদের নিজস্ব ফেসবুক আই.ডি থেকে উপরোক্ত মামলার বাদীনিকে জড়িয়ে বিভিন্ন কুৎসা রটনা করে প্রচার করতে থাকে। যাহা বাদী সামাজিক ভাবে এবং মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়ে এবং সামাজিক ভাবে বাদীর সুনাম ক্ষুন্ন হয়।

তিনি অভিযোগে আরো উল্লেখ করেন, বাদীর বিরুদ্ধে আসামীগণের ফেসবুক ষ্টেটাসে কমেন্টগুলোর সাথে বাদীর নূন্যতম সম্পর্ক নাই। সম্পর্ক না থাকা সত্ত্বেও আসামীগন পরষ্পর যোগসাজসে তাদের নিজস্ব ফেসবুক আই.ডি থেকে উক্ত মেয়েকে জড়িয়ে বাদীর বিরুদ্ধে নানা কুৎসা মূলক বক্তব্য প্রচার করে আসছে যার কারণে তিনি এই মামলা দায়ের করেন।

মামলা পরিচালনাকারী এডভোকেট মোরশেদুর রহমান চৌধুরী রোকন মোবাইল ফোনে মামলা দায়েরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ৬ জনের নাম উল্লেখ করে চট্টগ্রাম সাইবার ট্রাইবুনালে মামলা দায়ের করা হয়েছে। যার মামলা নং ৪। শুনানী শেষে বিজ্ঞ আদালত মহেশখালী থানার ওসিকে এক মাসের মধ্যে তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন জমা দেয়ার জন্য আদেশ দেন জানান।

উল্লেখ্য, এই ফেসবুক ব্যবহারকারীরা দীর্ঘ দিন ধরে সাধারণ মানুষকে নানাভাবে হয়রানি করে আসছে বলে জানা যায়।