বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯, ১১:১৫ অপরাহ্ন

send us mail/news: bangladeshpaper@yahoo.com
শিরোনাম:
অভিমানের ক্রিকেট কেরিয়ারের ইতি টানলেন নাজমুল হাসান। আয় নেই, তবুও ডুপ্লেক্স বাড়ি বানালেন যুবলীগ নেতা অনেকদিন পর সৈম্যের ব্যাটে রান। খেল্যেন কেরিয়ার সেরা ইংস। এই যেন ব্যাট নয় তরবারি। বাংলাদেশের লিষ্ট এ ইতিহাসের একমাত্র ২০০ রানের ইনিংস।   বিসিবি ধ্বংস করে দিল এক ডায়মন্ডের ক্যারিয়ার। ক্রিকেটে ডাকনামা অঘটনের ক্রিকেট। ঘটে চলেছে একের পর এক অঘটন। এইবার ক্রিকেট সাক্ষি হল একদিনের অন্তর্জাতিক ম্যাচে ২৫ বলে শতকের। ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি রোববারের মধ্যে ধর্মীয় বিষয়ে আমরা হস্তক্ষেপ করব না: হাইকোর্ট একসঙ্গে জন্ম নেয়া লক্ষ্মীপুরের সেই ৭ শিশুর মৃত্যু সময় হয়েছে…রোবটরা আসছে
উলুবনবিয়ার যাতায়তের একমাত্র সড়কের বেহাল দশা। কথা দিয়ে কথা রাখছেন না রাজনৈতিক নেতারা।

উলুবনবিয়ার যাতায়তের একমাত্র সড়কের বেহাল দশা। কথা দিয়ে কথা রাখছেন না রাজনৈতিক নেতারা।

হাছিব হোছাইনঃ

ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ড় উলুবনিয়ার যাতায়তের জন্য একমাত্র সড়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা মফজল আহামেদ সড়ক। গ্রাম টি চকরিয়া উপজেলার মধ্যে রাজনিতীর জন্য টুংগি পাড়া হিসাবে পরিচিতি পেলেও বর্তমান সরকার টানা ১০ বছর ক্ষমতায় থাকা সত্ত্বেও পাইনি কোন উন্নয়নের ছুয়া।২০০১ সালের পর যখন বর্তমান সরকার আওয়ামিলীগের খারাপ সময় যাচ্ছিল তখন অত্র উপজেলার আওয়ামিলীগের অস্থিত্ব টিকিয়ে রাখতে সবথেকে বেশি বড় ভূমিকা রেখেছিল ছোট এই গ্রাম। ১৯৭১ সালের পর থেকে যে গ্রামটিতে কখনো আওয়ামিলীগ পরাজিত হয়নি কিন্তু কেন ১৮ মার্চে  অনুষ্ঠিত উপজেলা নির্বাচনা আওয়ামিলীগের ভরাডুবি।

 

অত্র এলাকার যাতায়তের প্রধান এবং একমাত্র সড়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা মফজল আহামেদ সড়ক। এই এলাকার জনগনের একমাত্র দাবি এবং চাওয়া ছিল তাদের প্রধান সড়কটির কারপেটিং হবে। কিন্তু এখনো তাদের সপ্নটি সপ্ন থেকে গেল। সড়কটি কারপেটিং করার কথা বলে রাস্তার ব্রিক সলিন তুলে ফেলেছে ২ বছর আগে। তবে এখন অবদি রাস্তাটির কাজ শেষ করা হয় নি। অর্ধেক কাজ করার পর আর দেখা মেলেনি টিকাদারের। অনেক খোজা খুজির পরেও কোন হদিস পাওয়া যায় নি তার। খবর নিচ্ছে না সরকারি দায়িত্বরত ইঞ্জিনিয়ার। এই ধিকে দূর্ভোগে ভূগছেন অত্র এলাকার জনগন। প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে যাতায়ত করে শতাদিক যানবাহন যাদের পোহাতে হচ্ছে চরম দূর্ভোগ। মোটার সাইকেল চলাচলের সময় প্রায় দুর্ঘঠনার শিকার হচ্ছে, রাস্তায় প্রচুর পরিমাণে ধুলাবালি যা প্রতিদিন দূষণ করছে অত্র এলাকার পরিবেশ এবং সৃষ্টি হচ্ছে নানা ধরনের রোগ।

 

বর্তমান সরকারের সপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশের যোগাযোগ ব্যবস্তায় ২জি নেটওয়ার্ক চড়িয়ে ৪জি তে চলে আসলেও গ্রামটিতে বাড়ির ভেতর বসে ফোনে কারো সাথে কথা বলা যায় না। নেটওয়ার্ক ব্যবস্তা খুবই দূর্বল। দ্রুত গতির ইন্টারনেটের কথা এই গ্রামের মানুষ সপ্নেও চিন্তা করতে পারেন না।

Comments

মন্তব্য করুন

* বিজ্ঞাপন দিতে চাইলে যোগাযোগ করুন-01886610666*


বাংলাদেশ পেপারে ব্যবহৃত সকল সংবাদ এবং আলোকচিত্র বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বে-আইনি। স্বত্বাধিকারী bangladesh.com দ্বারা সংরক্ষিত। (নিবন্ধনের জন্য আবেদিত)
Desing & Developed BY MONTAKIM